উজিরপুরে জমির বিরোধে প্রকাশ্যে দিনমজুরকে কুপিয়ে জখম


২৪ ঘন্টা বার্তা   প্রকাশিত হয়েছেঃ   ৫ এপ্রিল, ২০২১

অনলাইন ডেস্ক:: বরিশালের উজিরপুরে জমি-জমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে হত্যার উদ্দেশ্যে এক দিনমজুরকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করেছে প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসীরা। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।অভিযোগ ও আহত সুত্রে জানা যায়- উপজেলার গজালীয়া গ্রামের শিরাজুল ইসলাম বেপারী(৪০)’র সাথে একই গ্রামের সুশীল রায় গংদের জমি নিয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ বিরোধ চলে আসছিল। এমনকী শিরাজুল ইসলামকে বিভিন্ন সময় ভয়ভীতি ও হত্যাসহ এলাকা থেকে উৎখাতের হুমকী অব্যাহত রেখেছে। এরই ধারাবাহিকতায় ৪ এপ্রিল রাতে শিরাজুল ইসলাম বেপারীর পালিত মুরগীর খোপে খাবারের সাথে বিষ প্রয়োগ করে। ৫ এপ্রিল ভোর সাড়ে ৬টায় ৮টি মৃত মুরগী দেখতে পেয়ে ডাকচিৎকার করে বিষয়টি বাড়ীর সকলকে জানালে এবং প্রতিবাদ করলে ক্ষিপ্ত হয়ে প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসী সুশীল রায়(৩৫), অঞ্জনা রায়(৩২),তপন মন্ডল(৪০), মিন্টু মন্ডল(৩৫)সহ একদল ভারাটিয়া সন্ত্রাসী মিলে দেশীয় অস্ত্র সাজে সজ্জিত হয়ে বসতবাড়ীতে ঢুকে প্রকাশ্যে দিনমজুর শিরাজুল ইসলামকে হত্যার উদ্দেশ্যে কুপিয়ে ও লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করেছে। এসময় তার স্ত্রী জাহেদা বেগম(৩৫) প্রতিবাদ করলে তাকেও পিটিয়ে আহত করে এবং কাপর চোপর ছিড়ে ফেলে ও টানা হেচরা করে শ্লীলতাহানি ঘটায়। আহত স্বামী ও স্ত্রীর ডাকচিৎকার শুনে পার্শ্ববর্তী বাড়ীর লোকজন ঘটনাস্থল আসার টের পেয়ে ওই সন্ত্রাসীরা শিরাজুলকে পরবর্তীতিতে প্রানে মেরে ফেলার হুমকী দিয়ে চলে যায়। প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসী হামলায় শিরাজুল ইসলামের মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তাক্ত জখম হয়েছে। স্থানীয়রা আহত শিরাজুল ইসলামকে উদ্ধার করে উজিরপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

আহত শিরাজুল ইসলাম বেপারী জানান, আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে ওই সন্ত্রাসীরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে উপুর্যপুরী ভাবে কুপিয়েছে। এরপরেও তারা ক্ষ্যান্ত হয়নি আমাকে হত্যা করে লাশ ঘুম করার হুমকি দিয়েছে।

উল্লেখ্য, অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আহত’র স্ত্রী জাহেদা বেগম বাদী হয়ে ঘটনার দিন উজিরপুর মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

আহত’র স্ত্রী জাহেদা বেগম জানান, আমার স্বামীকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে হত্যার চেষ্টা চালিয়েছে ওই সন্ত্রাসীরা। এই ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার জন্য উল্টো আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে হয়রানি করছে। অভিযুক্ত সুশিল রায়ের মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

উজিরপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ জিয়াউল আহসান জানান, উভয় পক্ষের অভিযোগ পাওয়া গেছে তদন্ত সাপেক্ষে অপরাধীদের বিরুদ্ধে আইনগত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ওই প্রভাবশালী সন্ত্রাসীদের দ্রুত গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্ত্রির দাবী জানিয়ে প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সু-দৃষ্টি কামনা করেন আহত’র পরিবার।