কাহালুতে আ.লীগের দুই গ্রুপের সংর্ঘষ


২৪ ঘন্টা বার্তা   প্রকাশিত হয়েছেঃ   ১৮ মার্চ, ২০২১

অনলাইন ডেস্ক:: বগুড়ার কাহালুতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্মশতবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপন উপলক্ষে উপজেলা আওয়ামী লীগের দুটি গ্রুপ গ্রুপের আয়োজিত কর্মসূচীতে সংর্ঘষ ও হামলার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যান সহ প্রায় ১০জন আহত হয়েছে।বুধবার বেলা ১২টার দিকে কাহালু চারমাথা এলাকায় আওয়ামী লীগের একটি গ্রুপের অস্থায়ী কার্যালয়ের সামনে ট্রাকের বহর সহ মিছিল নিয়ে যাওয়ার সময় আক্রোস মূলক শ্লোগানকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংর্ঘষ বাধে। সংর্ঘের সময় নারহট্ট ইউ পি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি রুহুল আমিন তালুকদার বেলাল এবং আবদুল আজিজ নামের এক আওয়ামী লীগের সমর্থক আহত হয়।সংর্ঘষের সংবাদ পেয়ে কাহালু থানা কর্মকর্তা ইনচার্জ (ওসি) মো. আমবার হোসেন সহ পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে এসে দ্রুত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।রুহুল আমিন তালুকদার বেলাল কাহালু উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আবদুল মান্নান এর গ্রুপের এবং আজিজ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ¦ মো. হেলাল উদ্দিন কবিরাজ এর গ্রুপের সমর্থক বলে ওই দুই গ্রুপের নেতাকর্মীরা নিশ্চিত করেছেন।অন্যদিকে বিকাল ৪ টার দিকে কাহালু উচ্চবিদ্যালয় মাঠে উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে আগত উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ¦ মো. হেলাল উদ্দিন কবিরাজ এর আরেকটি সভায় কতিপয় সন্ত্রাসীরা রাম দা নিয়ে অতর্কিত ভাবে হামলা ও ধাওয়া শুরু করে। এ সময় হেলাল উদ্দিন কবিরাজ এর ৫ থেকে ৭ জন সমর্থক আহত হয়।

এঘটনার নিন্দা জানিয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ¦ মো. হেলাল উদ্দিন কবিরাজ বলেন, উপজেলা আ.লীগের আয়োজনে আমরা শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচি পালন করছিলাম। এ সময় উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও কাহালু সদর ইউ পি চেয়ারম্যান পি এম বেলাল এবং নারহট্ট ইউ পি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি রুহুল আমিন তালুকদার বেলাল এর নেতৃত্বে কয়েকজন সন্ত্রাসী আমাদের নেতা-কর্মীদের উপর রাম দা নিয়ে হামলা করে।

কাহালু সদর ইউ পি চেয়ারম্যান ও উপজেলা পি এম বেলাল এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমার বিরুদ্ধে আনা সকল অভিযোগ মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন।

কাহালু থানা পুলিশ জানায়, পালপাড়া দীঘিরপার এলাকার ১টি রাম দা পরে থাকা অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে তবে কোন আসামি গ্রেপ্তার করা হয়নি। পুলিশ জানায় ওই হামলার ঘটনায় কোন মামলা দায়ের হয়নি।