টেকনাফে শিশুদের ঝগড়ায় লাঠির আঘাতে প্রাণ গেল যুবকের


২৪ ঘন্টা বার্তা   প্রকাশিত হয়েছেঃ   ৫ মার্চ, ২০২১

অনলাইন ডেস্ক::: টেকনাফে জাদিমোরা ২৭ নম্বর রোহিঙ্গা শিবিরে শিশুদের ঝগড়ার জেরধরে প্রতিপক্ষ (আপন মামা-ভাগিনা) লাঠির আঘাতে মোহাম্মদ হাসান আহমদ (২২) নামে এক যুবক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে।
নিহত যুবক উপজেলার হ্নীলা জাদিমোরা রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে বি-৬ ব্লকের বাসিন্দা মোহাম্মদ ঠান্ডা মিয়ার ছেলে।

বৃহস্পতিবার বিকাল পৌনে ৫টার দিকে উপজেলার হ্নীলা জাদিমোরা রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে বি-৬ ব্লকের মোহাম্মদ হাসান আহমেদের বাড়ির সামনে এ ঘটনাটি ঘটেছে।
এ তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন ১৬ আমড পুলিশ ব্যাটালিয়ান (এপিবিএন) কমান্ডিং কর্মকর্তা অধিনায়ক ও পুলিশ সুপার মোহাম্মদ তারিকুল ইসলাম তারিক।পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার হ্নীলা জাদিমোরা রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে বি-৬ ব্লকের মোহাম্মদ হাসান আহমেদের বাড়ির সামনে একই এলাকার বাসিন্দা মোহাম্মদ ইলিয়াছের ছেলে-মেয়েরা খেলা করছিল। খেলার এক পর্যায়ে শিশুদের মধ্যে ঝগড়া হলে পার্শ্বর্তী রোহিঙ্গারা থামিয়ে দেন এবং প্রত্যেকে ঘরে চলে যান। কিছুক্ষণ পরে মাগরিবের নামাজের পর হাসান তার শিশুদের মারধর করার বিচার চেয়ে ইলিয়াছের ঘরে সালিশ দিতে যান। তখন ইলিয়াছ ও নুর হোসেন সহোদরের সঙ্গে কথা কাটাকাটির এবং হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর রাত পৌনে ৭টার দিকে মোহাম্মদ হাসান আহমদ রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় আবু শামার ছেলে মোহাম্মদ ইলিয়াছ এবং তার ভাই নুর হোসেন লাঠি দিয়ে হাসানের মাথায় আঘাত করলে রক্তাক্ত হয়ে সে মাটিতে লুটে পড়ে। আহত হাসানকে তাৎক্ষণিক উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য রোহিঙ্গা শিবিরের স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রে নিয়ে যান। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত সাড়ে ১১টার দিকে সে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে মারা যান।
কমান্ডিং কর্মকর্তা অধিনায়ক ও পুলিশ সুপার মোহাম্মদ তারিকুল ইসলাম তারিক বলেন, লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাখা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।