নীলফামারীতে কয়েক যুগ পর মহিষের গাড়ীতে বিয়ে


২৪ ঘন্টা বার্তা   প্রকাশিত হয়েছেঃ   ১৪ মার্চ, ২০২১

অনলাইন ডেস্ক::নীলফামারীর ডোমারে গ্রাম-বাংলার ঐতিহ্যবাহী মহিষের গাড়িতে বিয়ের যাত্রা করতে দেখা গেছে এক নব-দম্পতিকে। ডিজিটাল এ যুগে ভাওয়াইয়া গানের তালে তালে মহিষের গাড়ি বহরে বরযাত্রী ও নতুন বৌ নিয়ে আসার বিষয়টা দেখতে শহরের পাড়ায় মহল্লায় দর্শকের উপচে পড়া ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো। এমনই দৃশ্য চোখে পড়ে ১৩ মার্চ ডোমার-চিলাহাটি মহাসড়কে। জানা গেছে, ডোমারের বোড়াগাড়ী ইউনিয়নের মাহিগঞ্জ বাগডোকরা এলাকার ডা. অধর চন্দ্র রায়ের ছেলে বিধান চন্দ্র রায়ের সঙ্গে বিয়ে ঠিক হয় একই ইউনিয়নের বোড়াগাড়ী বাজার বাবুপাড়া গ্রামের রমেশ চন্দ্র রায়ের কন্যা বাসনা রাণীর সঙ্গে। ১২ মার্চ রাত ১০টার দিকে ৬টি মহিষের গাড়ি বহর নিয়ে মাইকে ভাওয়াইয়া গান বাজিয়ে কনের বাড়িতে যায় বরযাত্রী। ওই রাতেই বিয়ে সম্পন্ন হয়। পরদিন শনিবার সকালে ঐতিহ্যবাহী মহিষের গাড়ি বহর নিয়ে স্বামী বিধান চন্দ্র রায় তার স্ত্রী রাণীকে নিয়ে ফিরেছেন বাড়িতে। এ সময় রাস্তার দু’পাশে শত শত মানুষজন গাড়ির বহর দেখতে ও মোবাইলফোন হাতে নিয়ে নব-দম্পতির ছবি তুলতে ব্যস্ত সময় পার করতে দেখা গেছে।
এ বিষয়ে বরের বাবা ডা. অধর চন্দ্র রায় বলেন, ডিজিটাল যুগে হারিয়ে যেতে বসেছে গরু-মহিষের গাড়ি। তাই গ্রাম-বাংলার ঐতিহ্যকে ধরে রাখতে বিভিন্ন এলাকা খুঁজে শেষ পর্যন্ত ঠাকুরগাঁও ও পঞ্চগড় থেকে ৬টি মহিষের গাড়ি ভাড়া করি। শুধুমাত্র ঐতিহ্যকে ধরে রাখতে মহিষের গাড়ির ব্যবস্থা করা হয়। তিনি বলেন কে সময় গ্রাম্য বিয়ের জন্য শুধু গরু ও মহিষের গাড়ী ব্যবহার করা হতো। আধুনিক যুগে এসে আর ওই গরু- মহিষের গাড়ী চোখে পড়ে না।