প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিচার দিয়ে কাউন্সিলর প্রার্থীর বিষপান


২৪ ঘন্টা বার্তা   প্রকাশিত হয়েছেঃ   ২৫ মার্চ, ২০২১

অনলাইন ডেস্ক::: ফেনীর সোনাগাজী পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. শাহজাহানকে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারে বাধ্য করায় বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন। বুধবার (২৪ মার্চ) রাতে পৌরসভার তুলাতলী এলাকায় তিনি নিজ ঘরে ফেসবুক লাইভে এসে প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিচার চেয়ে বিষপান করেন।
পরে তাকে সোনাগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গিয়ে কর্তব্যরত চিকিৎসক পাকস্থলি পরিষ্কার করেন। বর্তমানে তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন এবং আশংকামুক্ত রয়েছেন বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক সাদেকুল করিম।শাহজাহান জানান, ৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী হওয়ার পর থেকে দলীয় লোকজন তাকে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের জন্য নানাভাবে হুমকি-ধামকি দিয়ে আসছিলেন। তিনি তাদের ভয়ে আত্মগোপনে চলে যান।বিকেলে দলীয় লোকজন তার বাড়িতে গিয়ে বৃদ্ধ মাকে নানাভাবে মানসিক চাপ দিতে থাকেন। খবর পেয়ে তিনি বাড়িতে এলে জোরপূর্বক দলীয় লোকজন তাকে নির্বাচন কার্যালয়ে নিয়ে মনোনয়ন প্রত্যাহার করতে বাধ্য করান।ফেসবুক লাইভে এসে শাহজাহান প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনি বলেছেন, পৌরসভা নির্বাচনে তৃণমূলকে গুরুত্ব দিতে। আপনার কথায় আশ্বস্ত হয়ে আমি সোনাগাজী পৌরসভা নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে মনোনয়ন সংগ্রহ করি। আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের কয়েকজন নেতা আমাকে সকাল থেকে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করতে চাপ দিতে থাকেন। আমি তাদের চাপে পড়ে আত্মগোপনে চলে যাই। বিকেলে তারা আমার বাড়িতে গিয়ে আমার বৃদ্ধ মাকে চাপ প্রয়োগ শুরু করেন। খবর পেয়ে বাড়িতে গেলে তারা আমাকে জোর করে ধরে নির্বাচন কার্যালয়ে নিয়ে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করতে বাধ্য করেন। যারা আমাকে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করতে বাধ্য করেছেন, আমার মৃত্যুর জন্য তারাই দায়ী থাকবেন।’ পৌরসভা নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার অজিত দেব জানান, মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিনে মেয়র পদে দুজন, সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে নয়জন এবং সংরক্ষিত ওয়ার্ডে একজন প্রার্থী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের করেন।