ভোলায় ঋণের চাপ সহ্য করতে না পেরে গৃহবধূর আত্মহত্যা


২৪ ঘন্টা বার্তা   প্রকাশিত হয়েছেঃ   ৬ মার্চ, ২০২১

অনলাইন ডেস্ক:: ভোলায় এনজিওর ঋণ ও স্থানীয়দের কাছ থেকে চড়া সুদে টাকা নিয়ে দেনার চাপ সহ্য করতে না পেরে রিংকু বেগম (৩৫) নামের এক গৃহবধূ কীটনাশক পানে আত্মহত্যা করেছে।

নিহত রিংকু বেগম ভোলা সদর উপজেলার পূর্ব পলিশা ইউনিয়নের চর আনন্দ পাট-৩ গ্রামের মো. খোকন মিয়ার স্ত্রী ও ৩ সন্তানের জননী।

শনিবার (৬ মার্চ) বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে স্বামীর বাড়ি থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, রিংকু বেগমের স্বামী পেশায় জেলে। অনেক কষ্ট করে তাদের সংসার চলে। রিংকু বেগম বিভিন্ন এনজিওর থেকে ঋণ ও স্থানীয়দের কাছ থেকে চড়া সুদে টাকা নিয়ে স্বামীর ঘর নির্মাণ করেন। পরে সময় মত কিস্তি পরিশোধ করতে পারতেন না। এছাড়াও স্থানীয়দের কাছ থেকে নেয়া টাকার সুদও ঠিকমত পরিশোধ না করতে পারায় পাওনাদাররা প্রতিনিয়ত চাপ দিচ্ছিল। চাপ সহ্য করতে না পেরে শনিবার সকালের কোনো এক সময় কীটনাশক পান করে ঘুমিয়ে পড়ে। পরে বেলা ১১টার দিকে বড় ছেলে তাকে ডাকাডাকি করলে কোনো সাড়া শব্দ মেলেনি। এ সময় তার ডাক-চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে এসে তাকে মৃত অবস্থায় দেখতে পায়।ইলিশা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মো. ফরিদ শেখ বলেন, বিকেলে খবর পেয়ে লাশ ময়না তদন্তের জন্য ভোলা সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছি। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে।’