মাদারীপুরের শিবচরে মর্মান্তিক স্পিডবোট দুর্ঘটনায় নিহত হন বানারীপাড়ার আলাউদ্দিন


২৪ ঘন্টা বার্তা   প্রকাশিত হয়েছেঃ   ৪ মে, ২০২১

বানারীপাড়া প্রতিবেদক, বরিশাল::

লকডাউনের মধ্যে ঈদ করতে ঢাকা থেকে বিকল্প পথে বানারীপাড়ায় আসতে গিয়ে মাদারীপুরের শিবচরে পদ্মায় মর্মান্তিক স্পিডবোট দুর্ঘটনায় প্রাণ হারান বানারীপাড়ার আলাউদ্দিন বেপারী (৩৫)। তার লাশ গতকাল সোমবার (৩ মে) রাত ১০টার দিকে বানারীপাড়া ফেরিঘাটে এসে পৌঁছে। সেখান থেকে মরদেহ ফেরি পার হয়ে উপজেলার বাইশারী ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড বালীপাড়ায় নিজ বাড়িতে পৌঁছলে এক হৃদয়বিদারক দৃশ্যের অবতারণা হয়। শোকের মাতমে ভারী হয়ে ওঠে আকাশ-বাতাস। আলাউদ্দিন বেপারী ওই এলাকার হাশেম বেপারীর পুত্র। সে ঢাকায় ফুচকা ও ঝাঁলমুড়ি বিক্রি করতো। ঈদ উপলক্ষে সে বাড়িতে রওনা দিয়েছিল। সংসারে তার স্ত্রী ও ছোট দুটি ছেলে রয়েছে। মঙ্গলবার (৪ মে) সকালে তার জানাজা শেষে লাশ পারিবারিক গোরস্থানে দাফন করা হয়।


উল্লেখ্য, আলাউদ্দিন বেপারী লকডাউনের মধ্যে গণ পরিবহণ না থাকায় বিকল্প পথে ৩ মে রাতে ঢাকা থেকে রওয়ানা হয়ে ৩১ জন যাত্রীর সঙ্গে ভোর রাত ৬টার দিকে মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ের শিমুলিয়া ঘাট থেকে গাদাগাদি করে স্পীডবোটে ওঠে। গন্তব্য মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার বাংলাবাজার ঘাট। পথিমধ্যে কাঁঠালবাড়ি (পুরনো ফেরিঘাট) ঘাটের কাছে আসতেই নদীর পারে নোঙর করা একটি বাল্কহেডের (বালু টানা কার্গো) পেছনে সজোরে ধাক্কা লেগে স্পিডবোটটি দুমড়েমুচড়ে যায় । পদ্মার জলে ছিটকে পড়ে ৩১ যাত্রী সবাই। এদের মধ্যে ৫ জন ভাগ্যক্রমে বেঁচে গেলেও শিশুসহ ২৬ জনে সলিল সমাধি হয়। এদের সবাই মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত হয়। ২৬ হতভাগ্যের মধ্যে বানারীপাড়া উপজেলার বাইশারী ইউনিয়নের বালীপাড়া গ্রামের আলাউদ্দিনও মারা যান।