শেরপুরে ভাত না দেয়ায় ভাবিকে আঁচল পেঁচিয়ে হত্যা


২৪ ঘন্টা বার্তা   প্রকাশিত হয়েছেঃ   ১৮ মার্চ, ২০২১

অনলাইন ডেস্ক::: শেরপুরের নকলায় খাদেজা বেগম (৬০) নামের এক বৃদ্ধার মরদেহ উদ্ধারের ৫ দিনের মাথায় হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে থানা পুলিশ। তার দেবরই হত্যাকারী বলে জানিয়েছে পুলিশ। মঙ্গলবার (১৬ মার্চ) বিকালে অভিযুক্ত দেবর দুলাল মিয়াকে (৫৫) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।পুলিশ জানায়, নকলা উপজেলার ধনাকুশা মধ্যপাড়া এলাকার মৃত আশকর আলীর স্ত্রী খাদেজা বেগম। নিহত খাদেজা বেগম ও তার দেবর দুলাল মিয়া একই সঙ্গে খাওয়া-দাওয়া করত।দুলাল মিয়া ৭ মার্চ রাতে ভাবি খাদেজা বেগমের কাছে ভাত খেতে চায়। ভাত না দেয়ার কারণে দুলাল রাগান্বিত হয়ে ভাবি খাদেজাকে কাপড়ের আঁচল দিয়ে গলায় পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে।এ সময় বাড়িতে অন্য কেউ ছিল না। এই হত্যার কথা জানাজানি হয়ে যাওয়ার ভয়ে দুলাল মিয়া বৃদ্ধার মরদেহ বস্তাবন্দি করে বাড়ির পাশে খোলা জায়গায় গর্ত করে মাটিচাপা দেয়। এ ঘটনায় নিহত বৃদ্ধার ছেলে খোরশেদ আলম বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে নকলা থানায় মামলা দায়ের করেন।এ বিষয়ে নকলা থানার ওসি মুশফিকুর রহমান বলেন, গত ১১ মার্চ খাদেজা বেগমের অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধারের পর থেকেই তার পরিবারের ওপর নজর রাখা হয়। তার দেবর দুলাল মিয়ার গতিবিধি আমাদের সন্দেহ হয়। তাকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মঙ্গলবার গ্রেফতার করলে সে ঘটনার বিস্তারিত বর্ণনা দেয় এবং পরে একই দিন আদালতে দোষ স্বীকার করে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করে।উল্লেখ্য, গত ৭ মার্চ নিখোঁজ হওয়ার পর ১১ মার্চ বাড়ির পাশে খোলা জায়গায় একটি গর্ত থেকে খাদেজা বেগমের বস্তাভর্তি অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।