শৈলকুপায় নাতনীকে ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষক দাদার আত্মহত্যা


২৪ ঘন্টা বার্তা   প্রকাশিত হয়েছেঃ   ২৪ জুলাই, ২০২০

টিপু সুলতান,কালীগহ্জ,ঝিনাইদহ::::ঝিনাইদহের শৈলকুপায় টাকার লোভ দেখিয়ে ৬ বছরের নাতনীকে ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত দাদা কালাম শাহ (৬৫) সামাজিক লাজলজ্জার ভয়ে আত্মহত্যা করেছে। বৃহস্পতিবার ভোর রাতে উপজেলার মনোহরপুর ইউনিয়নের বিঞ্জুদিয়া গ্রামে এঘটনা ঘটে। নিহত ধর্ষক ওই গ্রামের ঘটনায় আইনউদ্দীন শাহ‘র ছেলে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ভোর সাড়ে ৫টার দিকে সে কোচিংয়ের উদ্দেশ্যে যাচ্ছিল। ঘটনাস্থলে পৌছাতেই দেখে রাস্তার পাশে থাকা আম গাছের ডালে ধর্ষক ঝুলে আছে। পরে চিৎকার দিয়ে পাশে একটি বাড়িতে গিয়ে ঘটনাটি খুলে বলে এবং অজ্ঞান হয়ে পড়ে।
স্থানীয়রা জানায়, ধর্ষক কালাম শাহ সামাজিক লাজলজ্জার ভয়ে শেষরাতের কোন এক অংশে হয়তো গলায় গামছা পেচিয়ে আত্মহত্যা করেছে। সকালে বৃষ্টি হওয়ায় গামছা ছিড়ে লাশ নিচে পড়ে যায়। তবে পুলিশ এসে তদন্ত করে দেখবে আসলেই আত্মহত্যা কি না।
শৈলকুপা থানার কর্মকর্তা ইনচার্জ (ওসি) জাহাঙ্গীর আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, পুলিশ ধর্ষকের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ঝিনাইদহ মর্গে পাঠনো হয়েছে।
গতকাল ২২ জুলাই দুপুরে অবুঝ মেয়েটিকে টাকার লোভ দেখিয়ে গোয়াল ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে বৃদ্ধ দাদা। পরে শিশুটির মা এসে গোয়াল ঘরে গিয়ে হাতেনাতে শ্বশুরের অপকর্ম দেখতে পাই। পরে শিশুটিকে উদ্ধার করে শৈলকুপা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। সেখান থেকে শিশুটির স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে রের্ফাড করে। এ ঘটনায় ধর্ষকের ছেলেকে আটক করেছে পুলিশ।