সেনবাগে ব্যাংক কর্মকর্তার হাত পা ভেঙ্গে দিয়েছে সন্ত্রাসীরা


২৪ ঘন্টা বার্তা   প্রকাশিত হয়েছেঃ   ১৮ মার্চ, ২০২১

অনলঅইন ডেস্ক::: গ্রামীন সড়ক দিয়ে ইটভাটার মাটির ট্রক্টর চলা চলে বাধা দেয়ায় ফয়সাল আহম্মেদ নামের এক ব্যাংক কর্মকর্তার হাত-পা ভেঙ্গে দিয়েছে কামাল উদ্দিন নামের এক সন্ত্রাসী। ঘটনাটি বুধবার সন্ধ্যার আগে নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার ৩নং ডমুরুয়া ইউনিয়নের হারিনকাটা-বাবুপুর-শ্রীপুর গ্রামের কালু ডাক্তারের বাড়ীর সামনে।
আহত ফয়সাল ফেনীর দাগনভূইয়া মার্কেন্টাইল ব্যাংকের সহকারী ক্যাশ ইনচার্জ ও স্থানীয় বাবুপুর- শ্রীপুর গ্রামের ডাঃ আবদুর রাজ্জাক প্রকাশ কালু ডাক্তারের ছেলে। এ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ রাতে একই এলাকার নাদু মিয়ার ছেলে আবদুল মতিন মেম্বার ও হারুর রশিদের ছেলে চৌধুরী কে আটক করে।
স্থানীয় ও আহতের পারিবারিক সুত্রে জানাগেছে, দীর্ঘ দিনে থেকে হারিনকাটা-বাবুপুর-শ্রীপুর সড়ক দিয়ে পার্শ্ববর্তী বিজয় ব্রিকস ফিল্ড নামের একটি ইটভাটার মাটি বহন করছে আসছে। এতে করে নতুন কার্পেটিং করা রাস্তার বিভিন্ন স্থানে গর্তেও সৃষ্টি হয়ে সড়কটি নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। ওই সড়ক দিয়ে ট্রাক্টর না চালাতে নিষেধ করে। ওই রাস্তার মধ্যে একটি খুটি পুতে রাখে। এ সংবাদ পেয়ে পার্শ্ববর্তি বাড়ীর আবদুর রবের ছেলে কামাল উদ্দিন এসে ্ একটি শাবল (লোহার খন্তা) দিয়ে পিটিয়ে ফয়সলের হাত ও পা ভেঙ্গ দেয়। এ সময় তার আর্তচিৎকার আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে সেনবাগ সরকারী হাসপাতালে ভর্তি করান। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাখা পুঙ্গু হাসপাতালে প্রেরণ করে।
এ ঘটনায় আহত ফয়সালের পিতা ডাঃ আবদুর রাজ্জাক বাদী হয়ে বুধবার রাতে সেনবাগ থানায় ৪ জন কে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। পুলিশ রাতে এ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে একই এলাকার নাদু মিয়ার ছেলে আবদুল মতিন মেম্বার ও হারুর রশিদের ছেলে চৌধুরী কে আটক করে।
এঘটনার অভিযুক্ত কামাল হোসেনের সাথে মূঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায় নি।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সেনবাগ থানার কর্মকর্তা ইনচার্জ (ওসি) মো আবদুল বাতেন মৃধা জানান, আটক আসামীদের গ্রেফতার দেখিয়ে বৃষ্পতিবার দুপুরে বিচারিক আদালতে প্রেরন করা হয়েছে।